Coming Up Sat 6:00 PM  AEST
Coming Up Live in 
Live
Bangla radio

অস্ট্রেলিয়ান পণ্য কিনে ছোট ব্যবসাগুলো রক্ষা করা যায়

Phillip and Vicky Skorsis Source: SBS

লক্ষ লক্ষ অস্ট্রেলিয়ান এখন লকডাউনে রয়েছেন। অস্ট্রেলিয়া এখন অর্থনৈতিক মন্দায়। স্মল ও ফ্যামিলি বিজনেসগুলোকে রক্ষা করার একটি উপায় হতে পারে অস্ট্রেলিয়ায় উৎপাদিত পণ্যগুলো অনলাইনের মাধ্যমে কেনা।

মেলবোর্নে ছেলে ফিলিপকে সঙ্গে নিয়ে একটি গার্মেন্ট ফ্যাক্টরি পরিচালনা করেন ভিকি স্কোরমিন। ৭০ বছর বয়সী ভিকি অস্ট্রেলিয়ান র‌্যাগ ট্রেডের ক্ষেত্রে তার জীবনে অনেক পরিবর্তন দেখেছেন। তবে, গত বছর করোনাভাইরাসের আঘাতের মতো পরিবর্তন এর আগে কখনও দেখেন নি তিনি। একটি বড় ধরনের অর্ডার হারিয়ে এখন তারা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

সুরক্ষাদানকারী পোশাক তৈরি করে করোনাভাইরাসের এই বৈশ্বিক মহামারীর সময়টিতে এই পরিবারটি কোনোভাবে টিকে আছে। তবে, বিগত ৩৭ বছরে তারা শুধুমাত্র কোভিড-১৯ এর চ্যালেঞ্জের মুখেই পড়েন নি।

অস্ট্রেলিয়ায় বিক্রি হওয়া বেশিরভাগ পোশাক-কাপড়ই চীনে তৈরি। ভিকির ব্যবসা ‘সি-জি-টি অস্ট্রেলিয়া’ স্থানীয় বহু উৎপাদনকারীর মতোই ব্যবসা টেকানোর জন্য অনেক সংগ্রাম করছে।

ভিকির ছেলে ফিলিপ বলেন, এখন ব্রান্সউইকের এই ব্যবসাটি আবারও ‘মেড ইন অস্ট্রেলিয়া’ আন্দোলনে যোগ দিয়েছে।

গ্রিসের একটি পোশাক উৎপাদনকারী পরিবারে ফিলিপের মা ভিকির জন্ম। তারা দু’জন সম্প্রতি সিডনি ও মেলবোর্নের অন্যান্য ব্যবসা-মালিকদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন। কর্পোরেট ল’ইয়ার কেট ডিলন “মেকিং অল অস্ট্রেলিয়ান ক্যাজুয়াল ওয়্যার” নামের একটি অনলাইন রিটেইল চালু করেছেন।

বহুল সংখ্যক নারী আজকাল ঘরে থেকে কাজ করায়, অনলাইনে কেটের দামি হ্যান্ডব্যাগগুলোর বিক্রি কমে যাওয়ায় তিনি সোয়েটশার্টের এই আইডিয়াটি গ্রহণ করেন।

কোভিডের এই সময়টিতে “মেড ইন অস্ট্রেলিয়া” আশার আলো দেখিয়েছে। লকডাউনের কারণে বহু রিটেইলার বা খুচরা ব্যবসায়ীর ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে। আর, সরবরাহ-শৃঙ্খল ভেঙ্গে পড়ায় ব্যবসা পরিচালনা ব্যয় শতকরা ১৪ ভাগ বেড়ে গেছে।

অস্ট্রেলিয়ায় বিক্রি হওয়া পোশাক-কাপড়ের শতকরা ৭৫ ভাগ যোগান আসে চীন থেকে। মাত্র ৪ শতাংশ তৈরি হয় অস্ট্রেলিয়ায়। কেট ডিলন বলেন, অস্ট্রেলিয়ায় উৎপাদিত পণ্য কেনা হলে স্মল ও ফ্যামিলি বিজনেসগুলো করোনাভাইরাসের এই বৈশ্বিক মহামারীর সময়টিতে টিকে থাকতে পারবে।

সোয়েটশার্টের প্রথম চালান ইতোমধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। এর জন্য আরও অর্ডার এসেছে।

সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ানদের আগ্রহ বাড়ছে। ইন্ডাস্ট্রি নেতৃবৃন্দ বলছে, এর মাধ্যমে ফ্যাশন ও টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রির প্রায় অর্ধ-মিলিয়ন কর্মী সুরক্ষা পাবে।

প্রতিবেদনটি শুনতে উপরের অডিও-প্লেয়ারটিতে ক্লিক করুন।

Follow SBS Bangla on FACEBOOK.

Coming up next

# TITLE RELEASED TIME MORE
অস্ট্রেলিয়ান পণ্য কিনে ছোট ব্যবসাগুলো রক্ষা করা যায় 24/08/2021 04:35 ...
ভারতের সাম্প্রতিক খবর, ১৬ মে, ২০২২ 16/05/2022 11:48 ...
ব্যাংকসটাউনের বৈশাখী মেলা পিছিয়ে গেল কেন? কী বললেন আয়োজকরা? 14/05/2022 03:47 ...
বাংলাদেশের সাম্প্রতিক খবর, ১৪ মে, ২০২২ 14/05/2022 07:28 ...
টানা দুই বছর বিরতির পরে গত শনিবার ৭ মে, মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত হল বৈশাখী মেলা 13/05/2022 06:57 ...
অস্ট্রেলিয়ার ফেডারেল নির্বাচন ২০২২: অভিবাসী কমিউনিটির তরুণরা নীতিনির্ধারণে আরও জোরালো বক্তব্য চায় 13/05/2022 10:47 ...
সেটেলমেন্ট গাইড: অস্ট্রেলিয়ায় শিশুদের অধিকার নিয়ে যেসব আইন আছে 12/05/2022 11:42 ...
কনসেন্ট টু হ্যাভ সেক্স: “এখানকার আইন বলে, ১৬ বছর বয়সী একটা ছেলে বা মেয়ে এ ব্যাপারে পূর্ণ সম্মতি দিতে পারে, যেটা বাংলাদেশে নেই” 11/05/2022 11:07 ...
ভারতীয় সংবাদ: ৯ মে ২০২২ 09/05/2022 10:58 ...
বাংলাদেশের সাম্প্রতিক খবর, ৭ মে, ২০২২ 07/05/2022 06:24 ...
View More