প্যারেন্ট ভিসা প্রোগ্রামে সর্বশেষ কী পরিবর্তন এসেছে?

অস্ট্রেলিয়ায় অভিবাসন আইন পরিবর্তনশীল। তার পরও যতো সময়ই লাগুক না কেন, যতো অর্থই ব্যয় করতে হোক না কেন, কোনো কোনো অভিবাসী তাদের বাবা-মাকে অস্ট্রেলিয়ায় নিয়ে আসতে চান। প্যারেন্ট ভিসা মাইগ্রেশন প্রোগ্রামে সর্বশেষ কী পরিবর্তন এসেছে?

Grandson kissing his grandmother

A grandson kissing his grandmother Source: Getty Images

হাইলাইটস:

  • প্যারেন্ট ক্যাটাগোরি এবং কন্ট্রিবিউটোরি প্যারেন্ট ক্যাটাগোরির মধ্যে পার্থক্য মূলত ভিসা ফিজ এবং প্রক্রিয়াকরণের সময়ের দিক থেকে।
  • স্পন্সরড প্যারেন্ট (টেম্পোরারি) (সাবক্লাস ৮৭০) ভিসা চালু করা হয়েছে ২০১৯ সালের এপ্রিলে। এই ভিসার মাধ্যমে ‘প্যারেন্ট’দেরকে অস্ট্রেলিয়ায় ১০ বছরের জন্য আনা যায়।
  • প্রতিটি মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের অধীনে ভিসা ইস্যু-সংখ্যার বার্ষিক ক্যাপ বা সীমা রয়েছে।

Advertisement
অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক, স্থায়ী অভিবাসী এবং নিউ জিল্যান্ডের উপযুক্ত নাগরিকেরা তাদের ‘প্যারেন্ট’দেরকে অস্ট্রেলিয়ায় অস্থায়ীভাবে কিংবা স্থায়ীভাবে আনতে পারেন।

এই ভিসার দুটি মূল ক্যাটাগোরি আছে:

‘প্যারেন্ট’ এবং ‘কন্ট্রিবিউটোরি প্যারেন্ট’।

‘কন্ট্রিবিউটোরি প্যারেন্ট’ ক্যাটাগোরি অনেক বেশি ব্যয়বহুল। তবে, ১ জুলাই থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম ইয়ার-এ এ ভিসার জন্য বেশি স্থান বরাদ্দ রয়েছে।

ব্রিসবেনের দি মাইগ্রেশন প্লেসের মাইগ্রেশন এজেন্ট ও আইনজীবি জেক বেন্টলি বলেন, আরও সামর্থ্যের মধ্যে আরও অনেক সুযোগও রয়েছে এবং সেগুলোর চাহিদাও রয়েছে। তবে, সেগুলোর মাধ্যমে ভিসা পেতে ৩০ বছর পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে।



অপরদিকে, কোনো পরিবার যদি প্রতি প্যারেন্টের জন্য মাথা-পিছু ৪৫,০০০ থেকে ৫৫,০০০ ডলার খরচ করতে রাজি থাকেন, সেক্ষেত্রে তারা দুই থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে ভিসা পেতে পারেন।

Smiling multi-generation Asian family
Smiling multi-generation Asian family Source: Getty Images


আর্থিক মানদণ্ডের শর্ত পূরণ করা ছাড়াও ভিসা-আবেদনকারীদেরকে অবশ্যই ক্যারেক্টার বা চরিত্র, স্বাস্থ্য এবং ‘ব্যালেন্স অফ ফ্যামিলি টেস্ট’-এ উত্তীর্ণ হতে হবে। ব্যালেন্স অফ ফ্যামিলি টেস্টের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পরিবারের সম্পৃক্ততা দেখা হয়। অন্য কোনো একটি দেশের তুলনায় বেশিরভাগ সংখ্যক সন্তান যদি অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাস করেন তাহলে এই টেস্টে উত্তীর্ণ হওয়া যাবে।

২০১৯ এর এপ্রিল থেকে সরকার স্পন্সরড প্যারেন্ট (টেম্পোরারি) (সাবক্লাস ৮৭০) ভিসা চালু করেছে।

সাইরাস মাইগ্রেশন লইয়ার্স এর স্যাম জ্যাযেইয়েরি বলেন, নতুন এই অস্থায়ী ভিসাটিতে প্যারেন্টরা প্রতিবারের ভিসায় তিন থেকে পাঁচ বছর অস্ট্রেলিয়ায় থাকতে পারবেন এবং এভাবে সর্বোচ্ছ ১০ বছর পর্যন্ত থাকতে পারবেন।

এই ভিসার মাধ্যমে সন্তান বা নাতি-নাতনিদের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ায় দশ বছর পর্যন্ত বসবাস করা যায়।

তিন বছরের জন্য এই ভিসার ফি ৫,০০০ ডলার এবং পাঁচ বছরের জন্য ভিসা ফি ১০,০০০ ডলার।

ভিসা প্রক্রিয়াকরণে আনুমানিক চার মাস সময় লাগে। আর, কোনো দম্পতি মাত্র এক সেট প্যারেন্টকে স্পন্সর করতে পারেন।

স্পন্সরড প্যারেন্ট (টেম্পোরারি) (সাবক্লাস ৮৭০) ভিসায় প্যারেন্টরা অস্ট্রেলিয়ায় কাজ করতে পারেন না কিংবা পার্মানেন্ট প্যারেন্ট ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন না।

আর, দশ বছর পর তাদেরকে তাদের নিজেদের দেশে ফেরত চলে যেতে হবে।

Mature daughter embracing senior mother after outdoor family dinner party
Daughter embracing mother after outdoor family dinner party Source: Getty Images


প্যারেন্টদের জন্য সব মিলিয়ে সাত ধরনের ভিসা আছে। তবে, প্রতিটি মাইগ্রেশন প্রোগ্রাম ইয়ারে নির্ধারিত সংখ্যার বেশি ভিসা প্রদান করা হয় না।

যেমন, ১ জুলাই ২০১৯ থেকে ৩০ জুন ২০১০ পর্যন্ত সব ধরনের প্যারেন্ট ভিসা মিলিয়ে সর্বোচ্চ ৭,৩৭১ টি ভিসার বেশি ইস্যু করা হবে না।

এর বাইরে প্রতিটি মাইগ্রেশন ইয়ারে সর্বোচ্চ ১৫,০০০ স্পন্সরড প্যারেন্ট (টেম্পোরারি) ভিসা ইস্যু করা হতে পারে।

নির্ধারিত সংখ্যক ভিসা প্রদান করা হয়ে গেলে ডিপার্টমেন্ট অফ ইমিগ্রেশন অ্যান্ড বর্ডার প্রটেকশন সেই অর্থ-বছরে আর কোনো ভিসা ইস্যু করে না এবং বাকি আবেদনগুলো ১ জুলাই থেকে শুরু হওয়া পরবর্তী অর্থ-বছরের জন্য থেকে শুরু রেখে দেয়।

প্যারেন্ট ভিসা সংক্রান্ত আরও তথ্যের জন্য দেখুন: .

আপনার নিজের ভাষায় সহায়তার দরকার হলে যোগাযোগ করুন এর সঙ্গে। ফোন করুন 13 14 50 নম্বরে।

Follow SBS Bangla on .




Share
Published 18 May 2020 at 5:47pm
By Josipa Kosanovic
Presented by Sikder Taher Ahmad